Trends

প্রত্যেক দু‘আ পর্দায় আবৃত থাকে, যে পর্যন্ত না দরুদ পাঠ করা হয়

darood sarif er fazilot 14

Darood Sarif er Fazilot ৪০. হযরত আলী রা: থেকে বর্ণিত। তিনি বলেছেনঃ প্রত্যেক দু‘আ পর্দায় আবৃত থাকে, যে পর্যন্ত না মুহাম্মাদ স:-এর উপর দরুদ পাঠ করা হয়। (বায়হাকী শরীফ, ২য় খন্ড, পৃ:নং-২১৫) (শো‘য়াবুল ঈমান, ৩য় খন্ড, পৃ:নং-১৩৫) (জামে‘য়ে আল-আহাদীস, ৩১তম খন্ড, পৃ:নং-৩৯৩, মুসনাদে আলী ইবনে আবী তালিব রা:পরি:) (জামে‘য়েল কাবীর, ১ম খন্ড, পৃ:নং-১৫৮২৮, হাদীস নং-৬৯৬, হরফে কাফ পরি:) (সহীহ কুনুঝুস সুন্নাহ্, ১ম খন্ড, পৃ:নং-২৩, হাদীস নং-১০) (কানঝুল উম্মাল ফি সুনানেল আকওয়াল, ১ম খন্ড, পৃ:নং-৪৯০, হাদীস নং-২১৫৩) (মেশকাতুল মাসাবীহ, ৩য় খন্ড, পৃ:নং-৫৬৯) (ফাতহুল কাবীর, ২য় খন্ড, পৃ:নং-৩০৪, হাদীস নং-৮৭১৯) (আল-মু‘জামুল আওসাতে, ১ম খন্ড, পৃ:নং-২২০) (মাওসূ‘আতে আতরাফেল হাদীস, ১ম খন্ড, পৃ:নং-২১১২৬০, হরফে …

Read More »

যে আমার উপর দরূদ পড়ে না সে বেহেশতের বিপরীত পথে চলছে

darud sarif er fajilot 13

Darud Sarif er Fajilot ৩৭. আমর ইবনে দীনার রহ: হযরত আবূ জাফর রা: থেকে বলেছেন যে, রাসূলে পাক স: এরশাদ করেছেন, যে আমার উপর দরূদ পড়ে না সে বেহেশতের বিপরীত পথে চলছে। (মুকাশাফাতুল ক্বূলূব, পৃ:নং ১০৭, আমানত ও তাকওয়াহ অধ্যায়) ৩৮. আব্দুর রহমান ইবন ইব্রাহীম রহ:…..হযরত সাহল ইবনে সা‘দ সা‘য়িদী রা: সূত্রে নবী স: থেকে বর্ণিত। তিনি স: বলেনঃ যার অযূ নেই, তার নামাজ হয় না, আর যে অযূর সময় বিসমিল্লাহ্ বলে না তার অযূ হয়না। আর যে ব্যক্তি নবী স:- এর উপর দরুদ পড়েনা, তার নামাজ হয় না এবং যে ব্যক্তি আনসারদের ভালবাসে না তার নামাজ হয় না। (ইবনে …

Read More »

যে ব্যক্তি দরুদ পাঠাতে ভুলে যায়, সে জান্নাতের পথই ভুলে যায়

dorud shorif er fojilot 12

Dorud Shorif er Fojilot ৩৪. হযরত ইবনে আব্বাস রা: থেকে বর্নিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ্ স: বলেছেন: যে ব্যক্তি আমার প্রতি দরুদ পাঠাতে ভুলে যায়, সে জান্নাতের পথই ভুলে যায়। (ইবনে মাজাহ শরীফ, ১ম খন্ড, পৃ:নং-৩৪৫, সালাত অধ্যায়, হাদীস নং-৯০৮, ইফাবা) (তিবরানী শরীফ, ১০ম খন্ড, পৃ:নং-৩২৩, হাদীস নং-১২৬৪৮) (মা‘রেফাতুস সুনান লেল-বায়হাকী, পঞ্চদশ খন্ড, পৃ:নং-১৬৫, হাদীস নং-৫৮৭০) (জামে‘য়েল কাবীর, ১ম খন্ড, পৃ:নং-২৪৬৮৪, হাদীস নং-২৩৩৬, হরফে মীম পরি:) (মু‘জামুল কাবীর, দ্বাদশ খন্ড, পৃ:নং-১৮০, হাদীস নং-১২৮১৯) (মুসনাদে সাহাবা, ৩০তম খন্ড, পৃ:নং-১৩০, মুসনাদে আব্দুল্লাহ ইবনে আব্বাস রা:পরি:) (সহীহ কুনুঝুস সুন্নাহ্, ১ম খন্ড, পৃ:নং-২৩, হাদীস নং-১৩) (কানঝুল উম্মাল ফি সুনানেল আক্বওয়াল, ১ম খন্ড, পৃ:নং-৫০৮, হাদীস নং-২১৬০) …

Read More »

আল্লাহ্ তোমাকে দুনিয়া ও আখিরাতের চিন্তা হতে মুক্তি দিবেন

Dorud Sorif er Fozilot 11

Dorud Sorif er Fozilot ৩২. হান্নাদ রহ:……হযরত তুফায়ল ইবনে উবাই ইবন কা’ব তার পিতা উবাই ইবনে কা‘ব রা: থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাত্রির দুইতৃতীয়াংশ অতিবাহিত হওয়ার পর রাসূলুল্লাহ্ স: উঠে দাঁড়াতেন। বলতেনঃ হে লোক সকল, তোমরা আল্লাহ্ তা‘আলাকে স্মরণ করো, তোমরা আল্লাহ্ তা‘আলাকে স্মরণ করো। প্রথম শিংগা ধ্বনির সময় আসছে তাকে অনুসরন করবে পরবর্তী শিংগা ধ্বনি। মৃত্যু তার সব ভয়াবহতা নিয়ে সমাগত, মৃত্যু তার সব কিছু নিয়ে সমাগত। উবাই রা: বলেন,আমি বললাম, ইয়া রাসূলাল্লাহ স:! আমি আপনার উপর অধিকহারে দরুদ পাঠ করে থাকি। আমার সময়ের কতটুকু আপনার প্রতি দরুদ পাঠে ব্যয় করব ? তিনি স: বললেন, তোমার যতটুকু ইচ্ছা। আমি …

Read More »

নিশ্চয়ই আমার উপর দরূদ পাঠ তোমাদের গুনাহ ক্ষমার কারণ হবে

dorud sharif er fojilot 10

Dorud Sharif er Fojilot ২৯. মুহাম্মাদ ইবনে সালামাহ্ মুরাদিউ রহ:…… হযরত আব্দুল্লাহ্ ইব্‌ন আমর (রা:) থেকে বর্ণিত যে, তিনি রাসূলুল্লাহ স:- কে বলতে শুনেছেন: তোমরা যখন মুআয্‌যিনকে আযান দিতে শোন তখন তোমরাও তা বলবে যা সে বলেছে। এরপর আমার উপর দরুদ পাঠ করবে। যে ব্যক্তি আমার উপর একবার দরুদ পাঠ করবে, আল্লাহ্ তা’য়ালা তার উপর দশবার রহমত নাযিল করেন। এরপর আমার জন্য ওয়াসীলা এর দু‘আ করবে। এ হল জান্নাতের একটি বিশেষ স্থান। আল্লাহ্ তা’য়ালার বান্দাদের মধ্যে কেবল একজন ব্যতীত আর কেউ এর যোগ্য হবে না। আশা করি আমিই হব সেই ব্যক্তি। যে ব্যক্তি আমার জন্য ওয়াসীলা প্রার্থনা করবে, তার জন্য …

Read More »

আমার উপর দরুদ শরীফ পাঠ করা হলো পুলসিরাতের উপর নূর

durood shareef er fojilot 09

Durood Shareef er Fojilot ২৬. হযরত আবূ হুরায়রা রা: হতে বর্ণিত, তিনি বলেন,রাসূলুল্লাহ্ স: বলেছেনঃ আমার উপর দরুদ শরীফ পাঠ করা হলো পুলসিরাতের উপর নূর, সুতরাং যে ব্যক্তি জুমু‘আর দিনে আমার উপর আশিবার দরূদ পাঠ করবে মহান আল্লাহ্ তা‘আলা তার আশি বছরের গুনাহ্ ক্ষমা করে দিবেন। (জামেয়ে আল-কাবীর, ১ম খন্ড, পৃ:নং-১৩৯৫৩, হাদীস নং-২৮৮) (কানঝুল উম্মাল ফি সুনানেল আকওয়াল, ১ম খন্ড,পৃ:নং-৪৯০, হাদীস নং-২১৪৯) (তাফসীর মাজহারী, ১ম খন্ড, পৃ:নং-৬৩৬২, তাফসীর মাজহারী অনুচ্ছেদ) (ফাতহুল কাবীর, ২য় খন্ড, পৃ:নং-১৯৪, হাদীস নং-৭৪০৮, হরফে ছোয়াদ পরি) (আত-তারগীব ফি ফাযায়েলে আ‘মাল ওয়া ছাওয়াব, ১ম খন্ড, পৃ:নং-২৫) (ফায়জুল ক্বাদীর, ৪র্থ খন্ড, পৃ:নং-৩২৮) (মাওসূ‘আতে আতরাফেল হাদীস, ১ম খন্ড, পৃ:নং-৯৪৩৭৯) …

Read More »

একবার দরুদ পাঠ করলে আল্লাহ্ তা‘আলা দশটি নেকী লিখবেন

darod sarif er fazilot 08

Darod Sarif er Fazilot ২২. হযরত বারা ইবন ‘আযিব রা: থেকে বর্ণিত যে, নবী করীম স: বলেছেন, যে ব্যক্তি আমার প্রতি একবার দরুদ পাঠ করবে, আল্লাহ্ তা‘আলা তার জন্য দশটি নেকী লিখবেন। তার দশটি গুনাহ মুছে দিবেন এবং এর বিনিময়ে দশটি মর্যাদা বৃদ্ধি করে দিবেন। আর এগুলো দশটি দাস-মুক্তির পুণ্যের সমান হবে। (আত-তারগীব ওয়াত্-তারহীব,২য় খন্ড,পৃ:নং৫৬৪, যিকর ও দু‘আ অধ্যায়,হাদীস নং৬,ইফাবা) ২৩. হযরত আবূ বুরদা ইবনে নিয়ার রা: থেকে বর্ণিত। নবী করীম স: বলেছেন, আমার উম্মতের যে কেউ খাঁটি অন্তরে আমার প্রতি এক বার দরুদ পাঠ করবে, আল্লাহ্ তা’আলা এর বিনিময়ে তার প্রতি দশটি রহমত নাযিল করবেন, এর দ্বারা তার দশটি …

Read More »

একবার দরুদ পাঠ করলে আল্লাহ্ দশ বার রহমত বর্ষণ করবেন

Darud Shorif er Fozilot 07

Darud Shorif er Fozilot ১৮. রাসূল স: থেকে বর্ণিত আছে যে, তিনি স: ইরশাদ করেন: যে ব্যক্তি আমার উপর একবার দরুদ পাঠ করবে, আল্লাহ্ তা’য়ালা তার উপর দশ বার রহমত বর্ষণ করবেন এবং তার জন্য দশটি নেকী লেখা হবে। (তিরমিযী শরীফ, ২য় খন্ড, পৃ:নং-১৬৭, বিতর অধ্যায়, হাদীস নং-৪৮৪, ইফাবা ) (মুসনাদে সাহাবা, ২৬তম খন্ড, পৃ:নং-২১, হযরত আব্দুল্লাহ্ ইবনে মাসউদ রা: পরি:) ১৯. ইয়াহইয়া রহ:…… হযরত আব্দুল্লাহ্ ইবনে আমর রা: হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, যে ব্যক্তি নবী করীম (স:)-এর উপর একবার দরুদ শরীফ পাঠ করে, আল্লাহ্ তা‘আলা ও তাঁর ফেরেশতাগণ তার উপর সত্তর বার দরুদপাঠ করেন অর্থ্যাৎ সত্তর বার অনুগ্রহ বর্ষণ …

Read More »

একবার দরুদ পাঠ করলে আল্লাহ দশটি গুনাহ মিটিয়ে দিবেন

Darud Sarif er Fazilot 06

Darud Sarif er Fazilot ১৫. হযরত আয়েশা রাঃ থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সঃ বলিয়াছেন, ‘এরুপ কোন লোক নাই, যে আমার উপর দরুদ পাঠ করে অথচ উহা লইয়া একজন ফেরেশতা উর্ধ্বে আরোহণ করেনা। সে উহা লইয়া করুণাময় আল্লাহ তা’আলার সামনে উপস্থিত হয়। তখন মহান আল্লাহ্‌ তা’আলা বলেন, ‘তোমরা ইহা লইয়া আমার সেই বান্দার কবরের পাশে যাও যাহাতে উহার উল্লেখকারীর জন্য তুমি ক্ষমা প্রার্থনা করিতে পার এবং ইহা দ্বারা তাহার চক্ষু ঠাণ্ডা করিয়া দাও। (ইবনে মাজাহ রহঃ আয়েশা রাঃ এর সূত্রে সংগ্রহ করিয়াছেন)। (হাদীসে কুদসী, পৃঃ নং-১৬৩-৬৪, হাদীস নং-২১০, নবী সঃ এর প্রতি দরুদ পাঠের ফযীলত পরিঃ, ইফাবা) (জামেয়ে আল-কাবীর, ১ম …

Read More »

আল্লাহ তা’‌আলা মুহাম্মাদ স:-কে তাঁর যোগ্য প্রতিদান দান করুন

darood sorif er fojilot 05

Darood Sorif er Fazilot ১২. হযরত ইবনে আব্বাস রা: থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ স: বলেছেনঃ যে ব্যক্তি বলবে, জাযাল্লাহু আন্না মুহাম্মাদান মাহুয়া আহলুহু অর্থাৎ আল্লাহ তা’‌আলা মুহাম্মাদ স:-কে তাঁর যোগ্য প্রতিদান দান করুন। এক হাজার দিন পর্যন্ত সত্তরজন লিখক ফিরিশতা এর পূণ্য লিখতে লিখতে ক্লান্ত হয়ে যাবেন। (তিবরানী শরীফ, ৯ম খন্ড, পৃ:নং-৪০৭, হাদীস নং-১১৩৪৭, হরফে মীম অনুচ্ছেদ) (জামেয়ে আল-কাবীর, ১ম খন্ড, পৃ:নং-২৩৭৭০, হাদীস নং-৫৮৬৮, হরফে মীম পরি:) (আল-মু’জামুল কাবীর, একাদশ খন্ড, পৃ:নং-২০৬, হাদীস নং-১১৫০৯) (আল-মু’জামুল আওসাত, ১ম খন্ড, পৃ:নং-৮২) (কানঝুল উম্মাল ফি সুনানেল আক্বওয়াল, ২য় খন্ড, পৃ:নং-২৩৪, হাদীস নং-৩৯০০) (আত-তারগীব ওয়াত-তারহীব, ২য় খন্ড, পৃ:নং-৫৭২, যিকর ও দু’আ অধ্যায়, হাদীস …

Read More »

প্রতি শুক্রবারে আমার উম্মতের দরুদ আমার কাছে পেশ করা হয়

dorud sorif

Dorud Sorif er Fojilot ৯. হযরত মূসা আ:-এর প্রতি দরুদ পাঠের নির্দেশঃ আল্লাহ পাক হযরত মূসা আ:-এর নিকট বলে পাঠালেন, হে মূসা! তোমার কথা তোমার জিহবার যতটুকু কাছে, তোমার হৃদস্পন্দন তোমার হৃদয়ের যতটা নিকটে, তোমার শ্রবণশক্তি তোমার শ্রবণেন্দ্রিয়ের সাথে যতটা ঘনিষ্ট, তুমি যদি চাও যে তার চেয়েও তোমার আমার সম্পর্ক অধিক ঘনিষ্ট হোক, তাহলে তুমি আমার বন্ধু মুহাম্মাদ স:- এর উপর বেশী পরিমাণে দরুদ পাঠ করো। (মুকাশাফাতুল ক্বুলূব, পৃ:নং-৪৫, আধ্যাত্নিক কৃচ্ছ্রসাধনা এবং পাপ প্রবৃত্তির তাড়না অধ্যায়) (আল-বাহারেল মাদীদ, ৬ষ্ঠ খন্ড, পৃ:নং-৭৯) ১০. হযরত জাবির রা: থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ স: বলেছেনঃ যে ব্যক্তি আমার উপর দিনে একশ’ বার দরুদ …

Read More »

অধিক দরুদ পাঠকারী কিয়ামতের দিন আমার নিকটতম হইবে

darud sharif

Darud Sharif er Fazilot ৫. আবু সাঈদ মালিনিউ রহ:…… হযরত আনাস ইবনে মালিক রা: সূত্রে রাসূলুল্লাহ স: থেকে বর্ণিত। তিনি স: বলেছেন, পরস্পর ভালবাসা পোষণকারী দু’জন বান্দা যখন একে অপরের সাথে সাক্ষাত করে এবং তারা উভয়ে নবী করীম স:- এর উপর দরুদ পাঠ করে, তখন তারা বিচ্ছিন্ন হওয়ার পূর্বেই তাদের অগ্র-পশ্চাতের গুনাহসমূহ মাফ করে দেওয়া হয়। (বায়হাকী শরীফ, ৬ষ্ঠ খন্ড, পৃ:নং-৪৭১, হাদীস ন‍ং-৮৯৪৪,মুসাফাহা এবং মু’আনাকা পরি:) (শো‍‍‍‌‍‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌’য়াবুল ঈমান, একাদশ খন্ড, পৃ:নং-২৮০, হাদীস ন‍ং-৮৫৪৩) (মুসনাদে আবূ ইয়া’লা, ৫ম খন্ড, পৃ:নং-৩৩৪, হাদীস ন‍ং-২৯৬০) (কানঝুল উম্মাল ফি সুনানেল আক্বওয়াল, ৯ম খন্ড, পৃ:নং-১৩৫, হাদীস নং-২৫৩৬৯) (জামেয়ে আল-কাবীর, ১ম খন্ড, পৃ:নং-২১৪৩৮, হাদীস নং-১২৮০, হরফে মীম …

Read More »